গাড়িতে সবুজ গাছের ঝোপ

মোবারক মোল্লা, ধানমন্ডি, ঢাকা

বিশ্বে এখন জলবায়ু রক্ষার কথা বলা হচ্ছে সভা- সেমিনার-জাতিসংঘের অধিবেশনে ।  গোটা বিশ্বের তাপমাত্রা যেই হারে বাড়ছে, তাতে গাছ লাগানোর বিকল্প নেই বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। একমাত্র গাছই পারে পরিবেশ বাঁচাতে, তাই এর গুরুত্ব  বেশি। কিন্তু কে শোনে কার কথা । বৃক্ষ নিধন চলছেই । গাছ কেটে যেসময় আবাসন প্রকল্প গড়ে তোলা হচ্ছে , নগরায়ণ হচ্ছে ঠিক সেসময়ই তাকে আবিষ্কার করা গেল ঢাকার রাজপথে ।

নাম তার জাকির হোসেন । তিনি এত জলবায়ু বিপর্যয় বোঝেন না । বোঝেন না তাপমাত্রার হিসাবনিকেশ , বোঝেন না এসবের সাথে মানুষের জীবনের সম্পর্ক কি ? জাকির গুরুত্বের থেকে প্রয়োজনের কথা বিবেচনা করে শখের বাগান করেছেন । কোথায় ? বাগানটি করেছেন তার গাড়ির ভেতরেই। সিএনজি অটোরিকশায় ।

তার গাছের তালিকায় মানিপ্ল্যান্ট সহ রয়েছে নানা জাতের ফুলের গাছ। সিএনজির ভেতরে ছোট ছোট বোতল কেটে তাতে লাগিয়েছেন গাছের চারা। সিএনজিতে উঠে বসলে রীতিমতো মনে হয় একটি ভ্রাম্যমাণ বাগান ছুটছে।

জাকির হোসেনের গ্রামের বাড়ি বরগুনায়, থাকেন ঢাকার উত্তর বাড্ডায়। প্রয়োজনটা কি জানতে চাইলে তিনি বলেন, জীবনে কোন কিছু করতে পারি নাই, তাই গাছ লাগাই। নিজের আরেকটি স্বপ্ন পূরণের লক্ষ্যে গত ঈদে বাড়ি যাননি। স্বপ্নটি হল প্রাণের শহর ঢাকায় এক মুঠো জায়গা কেনার। কিছু টাকা জমিয়েছেন, আরও প্রয়োজন তাই বাড়ি যাননি।

তার স্ত্রী যার বাসায় কাজ করেন সেই মালিক তাদের কথা শুনেও সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। ১.৫ কাঠার জমিতে তার ইচ্ছা একটি ছোট্ট ঘর এবং চারপাশ গাছগাছালি দিয়ে সবুজ করার। তার অগাধ বিশ্বাস তিনি একদিন পারবেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।