লিখেছেন: মাহবুব আলম

“পড়তে এসে অন্ধকার জগতে হারিয়ে যাচ্ছি”

“আকাশচুম্বি স্বপ্ন নিয়ে ভর্তি হয়েছি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে। ভর্তি হওয়ার পর থাকার জায়গা হলো গণরুমে। এক সঙ্গে গাদাগাদি করে থাকতাম প্রায় দেড়শ শিক্ষার্থী। রাত ১২টা থেকে চলতো সিনিয়র শিক্ষার্থীদের ব্যবহার শেখানোর নামে রেগিং। যা কোনভাবেই সহ্য করতে পারতাম না। যার কারণে রাতে ঠিক ভাবে ঘুম হতোনা। মনে সব সময় হতাশা আর অশান্তি কাজ করতো। জীবনে কখনো সিগারেট খাইনি, কিন্তু তখন একবিন্দু সুখের আশায় এক বন্ধুর পরামর্শে প্রথম সিগারেটে টান দিই। যা আমার জীবনে কাল হয়ে দাঁড়ায়।পড়তে এসেছিলাম,  এখন মাদক না নিলে সব কিছু এলোমেলো লাগে।” এভাবেই বলছিলেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩য় বর্ষের এক মাদকাসক্ত এক শিক্ষার্থী। এমন শত শত শিক্ষার্থী ‘মাদকে’র ভয়াল থাবায় হারিয়ে ফেলছে তাদের স্বপ্ন। যার কারণে তাদের মাঝে ঘটছে নৈতিকতার অবক্ষয়। জড়িয়ে যাচ্ছে চুরি, ছিনতাইসহ বিভিন্ন অপকর্মে। যার ফলে […]

দৃষ্টিহীন ঝর্ণা সফল হওয়ার দৃষ্টিভঙ্গীই বদলে দিচ্ছেন

মেয়েটির চোখে আলো নেই। এ পৃথিবীর অপার সৌন্দর্য তাই কখনোই তার দেখা হয়ে উঠেনি। বইয়ের পাতায় বর্ণগুলো দেখতে কেমন তাও সে জানেনা। কিন্তু পড়াশুনায় তার অদম্য ইচ্ছা। তাই অদম্য সেই ইচ্ছাশক্তির উপর ভর করে শুধুমাত্র কানে শুনেই একেকটা ক্লাস টপকে মেয়েটি এখন বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন গর্বিত শিক্ষার্থী। বলছি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সরকার ও রাজনীতি বিভাগের ঝর্ণা আক্তার রূপার কথা। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের জাহানারা ইমাম হলের আবাসিক শিক্ষার্থী। বাড়ি তার কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব থানায়। ইতিমধ্যেই শেষ হয়েছে তার বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের প্রথম বর্ষের পড়াশুনা। শুধুমাত্র দৃষ্টিহীনতার প্রতিবন্ধকতাকেই নয়। দারিদ্রের কঠিন চড়াই উৎরাইও ঝর্ণার অপ্রতিরোধ্য পথ চলাকে থামিয়ে দিতে পারেনি। দুই ভাই দুই বোনের সংসারে ঝর্ণা সবার ছোট। বাবা মারা গেছেন সে ছোট্ট বেলায়, যখন তার বয়স মাত্র এক বছর। বড় ভাইটি তার মানসিক প্রতিবন্ধী। আর্থিক […]

ছিনতাইয়ের দিকে ঝুঁকছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা!

মেধাবী শিক্ষার্থীরা ভর্তি হয় দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে। কিন্তু এসব মেধাবীরা জড়িয়ে যাচ্ছে ছিনতাইয়ের মত কর্মকান্ডে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সর্বশেষ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের জুনিয়র চার শিক্ষার্থীর হাতে সিনিয়র এক শিক্ষার্থী ও তার পরিবার মারধর এবং ছিনতায়ের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। ১৩ সেপ্টেম্বর ছিনতাইয়ের শিকার শিক্ষার্থী মো. মাসুদ পারভেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর বরাবর এক লিখিত অভিযোগপত্রে এ তথ্য জানিয়ে বিচার দাবি করেন। অভিযোগপত্রে উল্লেখ করেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের মাহাবুব শান্ত, ইতিহাস বিভাগের অরবিন্দ ভৌমিক, নাটক ও নাট্যতত্ত বিভাগের দ্বীপ বিশ্বাস, ইংরেজি বিভাগের ডিউক রায় মারধর করে মানিব্যাগ, মোবাইল, ঘড়ি নিয়ে যায়। তারা সবাই বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৬তম ব্যাচের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের আবাসিক শিক্ষার্থী। বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা কর্মকর্তা সুদিপ্ত শাহীন অভিযুক্ত শিক্ষার্থীরা ছিনতাইয়ের কথা শিকার করেছেন বলে জানিয়েছেন। অভিযুক্ত শিক্ষার্থীদের সাথে বহু মাধ্যমে […]

অসহায় শিশু যখন ব্যবসার মুলধন

কথা বলতে পারেনা। পা দুটো অচল। হাতেও কোন কাজ করতে পারেনা। তার পরিচয় কি? তাও সে জানেনা। শুধু হাসতে পারে। রাজধানীর বঙ্গবাজার রেলওয়ে জামে মসজিদের সামনে বসে থাকা ছবির ছোট্ট এ শিশুটির এ অবস্থা। রোববার মসজিদটির সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় তাকে দেখে খুব মায়া লাগলো। পা গুলো কেমন জানি চিকন হয়ে গেছে। পায়ের পাতার অংশ উল্টে আছে বিপরীত দিকে। তার সামনে রাখা একটা বাটি। সেখানে মানুষ দান করছে। আমিও সে বাটিতে কিছু টাকা দিলাম। তারপর কথা বলতে চাইলাম তার সাথে। জিজ্ঞাস করলাম, কি নাম তোমার? কয়েকবার জিজ্ঞাস করার পর মেয়েটি এদিক সেদিক চেয়ে শুধুই হাসে, কিছুই বলেনা। তারপর পাশে বসা এক টুপি বিক্রেতা বললো মামা ও কথা বলতে পারেনা। জিজ্ঞাস করলাম কেন? জন্ম থেকে এমন। এমনকি দাড়াতেও পারে না। আগে […]

মানুষের পাশে দাড়ানোই তাদের কাজ

চাঁদপুর হাসান আলী স্কুলের অষ্টম শ্রেনীর ছাত্র সজীব ও রায়হান। পাশাপাশি তারা স্কুলের রোবার স্কাউটের সদস্য। এ রোবার স্কাউট থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে তারা এখন পড়াশুনার পাশাপাশি কিছু সময় মানুষের সেবায় নিজেদের নিয়োজিত করেছেন। এইতো সেদিন ইদ উপলক্ষে চাঁদপুর জেলার নৌ ঘাঁট দিয়ে বাড়ি যাওয়ার পথে চোখে পড়লো, গায়ে আকাশী রংয়ের শার্ট, গলায় ট্রাই মুখে বাশিঁ আর নীল রংয়ের প্যান্ট পড়া কয়েকজন স্কুল পড়ুয়া শিক্ষার্থীকে। লঞ্চ থেকে নামা মানুষদের বিভিন্নভাবে সাহায্য করছে। এ যেমন মানুষদের সঠিক পথ দেখিয়ে দেওয়া, কোথাও জ্যাম বাঁধলে সে জ্যাম দূর করা। এছাড়াও মানুষ যাতে পকেটমার, মলম পার্টি ইত্যাদি থেকে নির্বিঘ্ন বাড়ি পৌঁছতে পারে সে জন্য কাজ করে যাচ্ছে এসব শিক্ষার্থীরা। তাদের দুজনের সাথে কথা বলে এমনটাই জানা গেল। তারা আরও জানান, তারা দুজনই নয়। তাদের মত […]

‘বিনামূল্যের ফরম কিনতে হলো টাকা দিয়ে’

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) জার্নালিজম এন্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগের ৪১তম ব্যাচের শিক্ষার্থী মওদুদ আহমেদ সুজন। গত ৩ সেপ্টেম্বর রোববার বেনাপোলের  সীমান্ত দিয়ে ভারত যাওয়ার সময় যেসব ভোগান্তির শিকার হয়েছেন ‘দেশগড়ির’ সাথে আলাপকালে তা তিনি এভাবেই বর্ননা করেছেন ——   রোববার তখন সকাল প্রায় নয়টা। বেনাপোল ইমিগ্রেশন ভবনের সামনে দাঁড়াতে না দাঁড়াতেই বহির্গমন ফরম নিয়ে একজন হাজির। যে ফরমটা বিনামূল্যে পাবার কথা সে ফরমটা হাতে পেতে এবং পূরণ করতে একজন মধ্যস্বত্ত্বভোগীকে ১০ টাকা দিতে হলো।   এরপর একটু সামনে যেতেই কাউন্টারে নব নির্মিত টার্মিনাল ফি বাবদ ৪০ টাকা দাবি করলো। দিলাম ৪০ টাকা সেখানে। ইতোমধ্যে দুইজন মধ্যস্বত্ত্বভোগী ২০০ টাকার বিনিময়ে সবকাজ করে দেবেন বলে প্রস্তাব দিতে থাকলো! কিন্তু আমি তাদের সে প্রস্তাবে রাজি না হয়ে সামনের দিকে যেতে থাকলাম। তারপর স্ক্যানার দরজা […]

রংতুলির ক্যানভাসে জান্নাতের স্বপ্ন

পড়াশুনায় মেধার স্বাক্ষর রেখে কৃতিত্বের সাথে  উত্তীর্ণ হয়েছে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায়।  স্কলারশিপ ও পেয়েজান্নাত, প্রতিভা আর অদম্য সাহসিকতা এ দুয়ের এক অপূর্ব সম্মিলন ঘটেছে তার জীবনের গল্পে। ছে। বর্তমানে সপ্তম শ্রেনীতে অধ্যয়নরত জান্নাত। কারো সামনে নিরব থাকাটা যেন তার চরিত্রের বৈশিষ্ট। কিন্তু বাস্তবে বেশ কথাপটু আর চঞ্চলও বটে। এ মেয়েটির ছবি অাঁকাটা সখের রাজ্য। নিয়মিত পড়াশুনা করা আর ছবি আকাঁ, এ দুটিই যেন তার ধ্যান আর জ্ঞান। বলতে গেলে এগুলো নিয়েই তো তার জীবন চলা। খুব ছোট বেলা থেকেই সে ছবি আকঁতে ভালোবাসে। ছোট্ট জান্নাতের মনের ক্যানভাসে যেন শুধু ছবিই জায়গা করে নিয়েছে। রংতুলির ক্যানভাসে যেন আর কোনো কিছুই নেই। যখন থেকেই সে স্কুলে যেতে শুরু করল, তখনই মূলত তার ছবি আকাঁর হাতেখড়ি শুরু হল। এক মনে,এক প্রাণে সে ছবি […]

”পাডি বানাই, বেচুম”

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্বববিদ্যালয়ের (জাবি) বিভিন্ন জায়গায় দেখা মিলে ছবির এ মানসিক ভারসাম্যহীন নারীকে। গায়ে প্রচণ্ড ময়লা। কোথাও দেখা যায় ,  মাটির মাঝে শুয়ে থাকেন আবার কোথাও বসে বসে নিজে নিজে কথা বলেন। বৃষ্টি এলে আশ্রয় নেন কোন এক অনুষদের বিল্ডিংয়ের নিচে। তবে বেশিরভাগ সময় বসে থাকেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের সামনে। প্রতিদন আসা যাওয়ার পথে দেখি বসে আছে, নিজে নিজে হাসছে অথবা কথা বলছে। মঙ্গলবার (২৯ আগষ্ট) বিকাল চারটার দিকে, বসে বসে কিছু নারকেল পাতা দিয়ে কি যেন বানাচ্ছেন। জিজ্ঞাস করলাম, নাম কি আপনার ? জামেলা খাতুন কি বানাচ্ছেন? পাডি বানাই কি করবেন বানিয়ে? বেচুম কোথায়? বাজারে নিয়ে কে কিনবো? মানুষরা? খাইছেন দুপুরে ? হুম খাইছে কে খাওয়ায় ? মাইনষে খাওয়ায়। এখন এখানে থাকেন, আগে থাকতেন কই ? পাড়ায় […]

হার না মানা মিরাজ অন্যসব দিনের মতোই শুরুটা ও হয়েছিল আজ

ভোরের আলোকে তিনি প্রায়শই হার মানান। জীবন আর জীবিকার তাগিদেই তার এই পথচলা। অন্যসব দিনের মতোই শুরুটা ও হয়েছিল আজ। বলছি আল মিরাজ নামে এক মধ্য বয়সী খেটে খাওয়া অসম্ভব পরিশ্রমী মানুষের কথা। যিনি একজন অটোরিক্সা চালক। রিক্সায় যেন তার সংসারের একমাত্র অবলম্বন। রোজকার মতো আজ ( ২৬ মে )তিনি খুব সকালেই বের হন জীবিকা অন্বেষণে। সাতসকালেই দুজন তরুণ এসে তাকে বললো, মামা যাবেন ? তিনি জানালেন আপনারা কোথায় যাবেন। ধবধবে সাদা পোষাক পরিহিত ঐ দুজন জানালেন যে, তারা জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে যাবেন। তারা আবারো ফিরে আসবে এখানে (কলমায়) । ক্যাম্পাস থেকে প্রয়োজনীয় আসবাবপত্র নিয়ে এসে তারা দুজনই তাবলীগ জামাতের ৪০ দিনের চিল্লায় যাবে। ছুটে চললো মিরাজের বিদ্যুৎ চালিত অটোরিক্সা। মাত্রই তারা কলমা থেকে ঢাকা-আরিচার সিএন্ডবি এলাকায় (জাবির মীর মশাররফ হোসেন […]

কোটা প্রথা, থেমে যাচ্ছে দরিদ্র মেধাবীদের শিক্ষাজীবন

পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করা হয়। শিক্ষার্থীরা  ভর্তিযুদ্ধের জন্য প্রস্তুতি নেন বিভিন্ন ভাবে। কেউবা ভিড় জমান বিভিন্ন কোচিং সেন্টারে। আবার কেউবা প্রাইভেট পড়ছেন ভাল ভাল শিক্ষকদের কাছে। সবমিলিয়ে বলা যায় নিজের পছন্দের বিশ্ববিদ্যালয়ে পছন্দের সাবজেক্ট পাবে আবার কেউ জীবনের জন্য বইখাতা কে বিদায় জানাবে। তবে এরমধ্যে একটা গোষ্ঠী আছে তার ব্যাতিক্রম । তাদের কোন কোচিং সেন্টার কিংবা প্রাইভেট পড়তে হচ্ছেনা। তারা পারিবারিক যোগ্যতায় তথা কোটায় ভর্তি হওয়ার জন্য প্রস্তুতি নেন। এটি যেন প্রতি বছরের চিত্র । দেশের প্রায় সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে এ কোটা প্রথা বিদ্যমান আছে । যখন শিক্ষার্থীরা রাতের ঘুম হারাম করে পড়াশুনা করে চাঞ্চ পায়না তখন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মচারিদের সন্তানরা অনায়াসে ভর্তি হয়ে যাচ্ছে মাত্র ৩২ নাম্বার পেয়ে। এতে শিক্ষার্থীরা মনে করছেন মেধার যথাযথ মূল্যয়ন দেওয়া হচ্ছে না। প্রকৃত […]