লিখেছেন: রোমেন রাহা

কোয়েলেই কোটিপতি শামীম

ছেলেবেলায় বই পড়ে কোয়েল পাখির কথা জেনেছি। তখন থেকেই কোয়েল পাখি পোষার স্বপ্ন ছিল। কিন্তু জীবনের প্রয়োজনে বেছে নিতে হয় প্রবাস জীবন। এমন সময় বিদেশে বসেই টেলিভিশনে কোয়েল পাখি চাষ করে সফল হয়েছে এমন কয়েকটি প্রতিবেদন দেখে আমার উৎসাহ আরো বেড়ে যায়।’ এভাবেই স্বপ্ন বাস্তবায়নের গল্প বলছিলেন টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার কচুয়া গ্রামের সফল কোয়েল চাষি শামীম আল মামুন।তার সাথে আমার কথা হয় শাহবাগের আজিজ মার্কেটে । পরে সখীপুরে আমি উনার সাফল্যগাঁথা দেখতে যাই । শামীম বলেন, ‘৩০ শতক জমির ওপর গড়ে তুলি কোয়েলের খামার। ৫শ’ কোয়েলের বাচ্চা দিয়ে শুরু হয় সেই স্বপ্নের যাত্রা। এখন আমার খামারে কোয়েলের সংখ্যা প্রায় ২৫ হাজার। গড়ে তুলেছি কোয়েলের একটি হ্যাচারি।’ তিনি জানান, উপজেলার প্রাণিসম্পদ বিভাগের কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে জানতে পারেন বগুড়ায় কোয়েল পাখির […]

অন্ধকার থেকে হাসপাতালে

রাত প্রায় একটা বাজে। চারিদিকে খুব বৃষ্টি। বৃষ্টি আর কাঁদায় একাকার সারা গ্রাম। গ্রামের নাম নাগরগঞ্জ। এই গ্রামে এখনো কোন বিদ্যুৎ আসেনি। চারিদিকে অন্ধকার। অন্ধকার ঘরে হারিকেনের আলোতে শুয়ে ছটপট করে শিরীন। শিরীনের বাচ্চা হবে। মরিয়ম খালা রাত এগারোটা থেকে চেষ্টা করে। কোন কিছুতেই কিছু হয়না। শিরীনের অবস্থা আরও খারাপ হতে থাকে। শিরীন ব্যাথার যন্ত্রণায় খুব কষ্ট পায়। এদিকে মাটির বারান্দার চকির উপর বসে দোয়া দরুদ পড়ে আব্দুল আলীম। শিরীন আব্দুল আলীমের বড় ছেলে কবিরের বউ। কবির ঢাকায় চাকরী করে। আব্দুল আলীমের এক ছেলে এক মেয়ে। মেয়ের শ্বশুর বাড়ি থাকে। এদিকে কবিরের মা বেঁচে নাই। আব্দুল আলীম একা কি করবে বুঝে উঠতে পাড়ে না। কবিরকে একটা ফোন করা দরকার। কিন্তু মোবাইলে কোন টাকা নাই। কবিরের এটাই প্রথম বাচ্চা। দুই বছর […]

যুক্তরাষ্ট্রে তরুণ অভিবাসীদের বিপদ

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সময়ে করা অনিবন্ধিত তরুণ অভিবাসীদের সুরক্ষা সংক্রান্ত কর্মসূচি বাতিল করেছে ট্রাম্প প্রশাসন। ‘ডাকা’ বা ‘ড্রিমার’ নামে পরিচিত এই প্রকল্প বাতিল করার নির্বাচনী অঙ্গীকারও ছিল ট্রাম্পের। অ্যাটর্নি জেনারেল জেফ সেশনস ৫ সেপ্টেম্বর এ প্রকল্পের অবসান ঘোষণা করেন। এর ফলে বারাক ওবামার সময়ে নেয়া ‘ডেফারড অ্যাকশান ফর চিলড্রেন অ্যারাইভাল’ বা ‘ডাকা’ নামের প্রকল্পটির আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি ঘটলো। ফলে দুই বছর ছাড়ের মেয়াদ শেষ হবার পর কাজ বা পড়ালেখার সুযোগ হারাবে অন্তত আট লাখ অভিবাসী তরুণ। পাঁচ বছর আগে তৎকালীন প্রেসিডেন্ট ওবামার চালু করা এই প্রকল্পের আওতায় সুরক্ষা পেয়েছিল যুক্তরাষ্ট্রে আসা প্রায় আট লাখ অনিবন্ধিত তরুণ অভিবাসী। যাদের বেশিরভাগই এসেছিল ল্যাটিন আমেরিকার দেশগুলো থেকে। আইনের ফাঁক গলে আসা তরুণদের বিতারণের হাত থেকে রেহাই দিয়ে সেদেশে বসবাস, পড়াশোনা ও ভবিষ্যত […]

আদালতে চাকমা নারী

সুপ্রীমকোর্ট বারে প্রথমবারের মতো চাকমা সম্প্রদায়ের নারী আইনজীবী হিসেবে যাত্রা শুরু করেছেন সমারি চাকমা। গত চার বছর ধরে বিচারিক আদালতে কাজ করছেন সমারি চাকমা। কিন্তু ২০১৭ সালে এসে সুপ্রীমকোর্ট বার এর পরীক্ষায় উর্ত্তীর্ণ হওয়ায় তিনিই চাকমা সম্প্রদায়ের প্রথম নারী আইনজীবী হিসেবে পেশাগত জায়গায় এই স্থান অর্জন করলেন। হিল উইমেনস ফেডারেশনের একজন সক্রিয় নেত্রী ছিলেন সমারি চাকমা। পরবর্তীতে তিনি নানা সামাজিক কাজের সঙ্গে নিজেকে সম্পৃক্ত করেন। রূপক চাকমা ট্রাস্টের মাধ্যমে বন্ধুদের সঙ্গে পাহাড়ের শিক্ষার্থীদের শিক্ষাবৃত্তির মাধ্যমে লেখাপড়া এগিয়ে নেওয়ার কাজও করেন সমারি। এছাড়া দীর্ঘদিন ধরে সহযোদ্ধা কল্পনা চাকমার অপহরণের বিরুদ্ধে লড়াই অব্যাহত রেখেছেন সমারি চাকমা। পাহাড়ের নারীদের নির্যাতন ও নিপীড়নের ‍বিরুদ্ধে সমারি চাকমা সরব রয়েছেন সবসময়। সমারি চাকমা বলেন, “নারী নির্যাতনের ঘটনা সমতলে এক রকম, পাহাড়ে অন্য রকম। পাহাড়ের এই নির্যাতিত […]

ভ্রমণে প্রশান্তির বরফের ঘর

ভারতের মানালিতে অবস্থিত বরফের ঘর দেশি–বিদেশি পর্যটকদের আকৃষ্ট করে। ভ্রমণপিপাসুরা মানালিতে এলে বরফের ঘর দেখেই মুগ্ধ হয়ে যান। কেননা প্রচণ্ড গরমেও এখানে প্রশান্তির ছোঁয়া পাওয়া যায়। বরফের ঘরগুলো আধুনিক সাজে সজ্জিত। ঘরগুলোতে অনায়াসেই দু’জন থাকা যায়। ঘরগুলো বাইরে থেকে দেখতে যতটা সুন্দর, ভেতরটা তার চেয়েও বেশি সুন্দর এবং আরামদায়ক। ঘরের এক রাতের ভাড়া ৪,৬০০ টাকা থেকে ৫,৬০০ টাকা। ভারতের অন্য কোনো পর্যটন কেন্দ্রে এতো সুন্দর বরফের ঘর নেই। মানালিতে বরফের ঘরে থাকার পাশাপাশি স্নো–স্কেটিংয়ের আনন্দ উপভোগ করার সুযোগ পাবেন পর্যটকরা। কীভাবে যাবেন ঢাকা–বেনাপোল বাস ভাড়া নন এসি ৫শ’ টাকা। বর্ডার পাড় হয়ে অটোতে বনগাঁ স্টেশন ভাড়া ৩০ রুপি। ট্রেনের টিকিট শিয়ালদহ পর্যন্ত ১৫–২০ রুপি। শিয়ালদহ থেকে ফেয়ারলি প্লেস গিয়ে ফরেন কোটার টিকিট কাটবেন ভাড়া নন এসি স্লিপার ক্লাস ৬০০–৬৫০ রুপি। […]

গোরস্থানে কাটে যে জীবন

মোবারক আজিমপুর গোরস্থানে কবর খোঁড়ার কাজ করে। প্রতিদিন সে পাঁচ ছয়টা করে কবর খুঁড়ে। প্রতিটা কবররের জন্য সে পাঁচশো ত্রিশ টাকা করে পায়। আজ এগারো বছর ধরে মোবারক এই কাজ করে। এই কাজ করতে করতে অনেকের সাথে মোবারকের ভালো জানাশোনা হয়ে গেছে। জানাশোনার কবর আছে আরও প্রায় পঁচিশটা। পঁচিশটা কবরে ঘাস কাঁটা, গাছ লাগানো, পানি দেয়া, এই সব পরিচর্যার জন্য মোবারক, কবর প্রতি, মাসে আরো চারশো টাকা করে, মৃতদের আত্মীয়স্বজন থেকে পায়। সেই অনুপাতে মোবারকের আয় ইনকাম অনেক ভালো। সে চার হাজার টাকা ভাড়া দিয়ে তাঁর পরিবার সহ ঢাকায় থাকে। মোবারকের একটা মেয়ে। মেয়েটা ক্লাস সেভেনে পড়ে। এগারো বছর আগে। মোবারকের চাচা তাঁকে এই কাজে ঢুকায়। চাচা আজ বেঁচে নাই। প্রথম প্রথম মোবারকের এই কাজ করতে ভয় লাগতো। এখন ভয় […]

মন্দিরা গ্রামে নেমে এলো পরী কালো রংয়ের এন সিরিজের একটা নতুন চকচক করা বি এম ডাব্লিউ গ্রামের পথ ধরে আস্তে আস্তে চলে আর কি যেন খোঁজ করতে করতে যায়। বয়স্ক মানুষ দেখলেই কিছুক্ষন পর পরই কালো কাঁচ নামিয়ে গাড়ীর ড্রাইভার কি যেন জানতে চায়।

রংপুর জেলার সদর উপজেলার মন্দিরা গ্রাম। ছেলে বৃদ্ধ সবার দৃষ্টি একটা গাড়ীর দিকে। গ্রামের ছোট ছোট শিশুরা মুরগীর বাচ্চার মতো গাড়ীর পিছন পিছন ছুটছে। হাতে ছুয়ে খালি গা ঘষে গাড়ী দেখার স্বাধ উপভোগ করছে। এই গ্রামে এমন গাড়ী তারা জীবনেও দেখেনি। সাইকেল, রিক্সা ভ্যান বড় জোর ট্রাক্টর পর্যন্ত তাদের দৌড়। কালো রংয়ের এন সিরিজের একটা নতুন চকচক করা বি এম ডাব্লিউ গ্রামের পথ ধরে আস্তে আস্তে চলে আর কি যেন খোঁজ করতে করতে যায়। বয়স্ক মানুষ দেখলেই কিছুক্ষন পর পরই কালো কাঁচ নামিয়ে গাড়ীর ড্রাইভার কি যেন জানতে চায়। দোচালা একটা মাটির ঘর। ঘর দোচালা হলেও ভাংগা চুরার শেষ নেই। জং ধরে টিনের চালে বড় বড় ফুটা হয়ে ভেংগে পড়ছে। বাড়ীর খুঁটি গুলি ক্ষয় হতে হতে সরু হয়ে গেছে। একদিকে […]

মৌলভীবাজার খুনের মোড়, মুসাফিরনামা ও একজন মোবাশ্বের মাস্টার মুলত সন্ধ্যার পর এখানে বেশ আড্ডাবাজদের দেখা যায়। বয়স্ক থেকে তরুণ। ছোট ছোট গ্রুপে বিভক্ত হয়ে তারা আড্ডা জমান। কেউ কেউ মিষ্টির দোকানে বসেন । কেউবা চায়ের দোকানের পাশে পরিত্যক্ত যে দ্বিতল ভবন রয়েছে তার রকে বসেন । কেউবা দাড়িয়েই আড্ডা মারেন । রাত এগারোটা অব্দি এখানে ভীড় লেগেই থাকে । এরপর ভীড় কমতে থাকে । বারোটার ভেতর পুরো ফাঁকা হয়ে যায় ।

 রসিদপুর। একটি উপশহর। মৌলভীবাজার জেলার। এ শহরে একটি মাত্র মিষ্টির দোকান আছে। নাম মাতৃভাণ্ডার। এরপাশেই একটি চায়ের দোকান।  দোকানের ওপরে সবুজের মাঝে লাল অক্ষরে বড়ো করে লেখা, ‘এখানে গরুর খাটি দুধের চা পাওয়া যায়।’ মুলত সন্ধ্যার পর এখানে বেশ আড্ডাবাজদের দেখা যায়। বয়স্ক থেকে তরুণ। ছোট ছোট গ্রুপে বিভক্ত হয়ে তারা আড্ডা জমান। কেউ কেউ মিষ্টির দোকানে বসেন । কেউবা চায়ের দোকানের পাশে পরিত্যক্ত যে দ্বিতল ভবন রয়েছে তার রকে বসেন । কেউবা দাড়িয়েই আড্ডা মারেন । রাত এগারোটা অব্দি এখানে ভীড় লেগেই থাকে । এরপর ভীড় কমতে থাকে । বারোটার ভেতর পুরো ফাঁকা হয়ে যায় । তারপর পুলিশের টহল গাড়ি  এসে দাড়ায়। মাতৃভাণ্ডারের ম্যানেজার অনিল বাগচি তখন দোকানে তালা মেরে হয়ত বেরুচ্ছেন । পাশেই হাটাপথে তিন/ চারমিনিটে তার বাসায় […]

পিছিয়ে থাকার সময় শেষ

পিছিয়ে থাকার সময় অনেক আগেই শেষ হয়েছে। তাইতো আমাদের তরুণ-তরুণীরা আজ সাফল্যের পতাকা নিয়ে সামনে এগিয়ে যাচ্ছে। নাম উজ্জ্বল করছে আমাদের দেশের। আর এই এগিয়ে যাওয়ার মধ্যে রয়েছে অনেক শ্রমের গল্প। ঠিক তেমনি একজন আমাদের আরজানা ইতি। ছোটবেলায় সবার স্বপ্ন থাকে আমি ডাক্তার-ইঞ্জিনিয়ার হব, কিন্তু আমাদের আরজানা ইতির স্বপ্ন ছিল মানুষের মতো মানুষ হবে সে। এমন মানুষ হতে চাই, যে মানুষকে দরকার হয়। বাড়ি গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে। এসএসসি করেছেন গাজীপুরের সালনা নাছির উদ্দিন মেমোরিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে। এইচএসসি গাজীপুর গভর্নমেন্ট মহিলা কলেজ থেকে। শান্ত-মারিয়াম ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি থেকে বিবিএ করেছেন। গদবাঁধা পড়া লেখার পাশাপাশি নিজেকে ভিন্নভাবে উপস্থাপন করার ইচ্ছা এবং কঠিনকে জয় করার তাগিদে আয়ত্ত করেন চীনা ভাষা। আমাদের দেশে সবচেয়ে বড় বাজেটের স্বপ্নের পদ্মা সেতু প্রকল্পে কাজ করছেন […]

সিলসিলা সর্বসাধারণ

ট্রেন ছুটে চলেছে  চট্রগ্রামের দিকে । ঢাকা থেকে । আমার মুখোমুখি যিনি বসা তার পরণে লাল সালু’র কাপড় । সাধুদের মতোন । চুল জুটি বাঁধা । হাতে অনেক বালা । গলায় ও অনেক মালা । নাম কি ? আমার প্রশ্নের জবাবে নির্বিকারভাবে জানালার দিকে তাকিয়ে উত্তর দিলেন , ” বায়োজিদ বোস্তামী।” পরিচয় এভাবেই । যাত্রাপথে অামাদের কথা শুরু হয় । রাতের ট্রেন  । ঘুম আসছিল না দুজনেরই । বায়োজিদ বোস্তামী যাবেন কক্সবাজার । কোনদিন সমুদ্র দেখেন নি । মাজারে মাাজারে ঘুরে বেড়ান। কুষ্টিয়া , বাগেরহাট , সিলেট সব জায়গায় মাজারে গিয়েছেন কিন্তু কক্সবাজার কখনো যাননি । তার ধারণা নূহের প্লাবনের শুরু স্থল কক্সবাজার । তাই ওখানে মাজার থাকবই। না থাকলে মাজার করতে হবে । বায়োজিদ বোস্তামী ঘর ছাড়েন কত বছর […]