লিখেছেন: সেতু রাসেদ

সোহাগের প্রথমে হতাশা, পরে আলোর ঝলকানি

আসাদুজ্জামান সোহাগ একজন সফল উদ্যোক্তা। তিনি আমার বড় ভাইয়ের বন্ধু । সেই হিসেবে তার জীবনের বাঁকে প্রথমে হতাশা পরে সাফল্য আমাকে অনুপ্রাণিত করে । অনেক পরিশ্রম করে আজ তিনি গ্রামের একজন সফল উদ্যোক্তা হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছেন। তাকে দেখে অনেক যুবক আত্মকর্মসংস্থানের ব্যাপারে উৎসাহ পাচ্ছেন। মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার দড়িচর লক্ষ্মীপুর গ্রামের ছেলে আসাদুজ্জামান সোহাগ। ২০০১ সালে তিনি কালকিনি সৈয়দ আবুল হোসনে কলেজ থেকে বি.কম পাস করে বিদেশ যাওয়ার জন্য বিভিন্ন এজেন্সি ও দালালের মাধ্যমে অনেক টাকা খরচ করেন। সে চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে পরে দেশেই চাকুরির চেষ্টা করেন। তাতেও বিফল হয়ে হতাশায় ভুগতে থাকেন। সবশেষে কোন উপায় না দেখে বড় ভাই ও বাবা-মায়ের পরামর্শে ৪ বিঘা জমিতে পুকুর তৈরি করে মাছ চাষ শুরু করেন। কিন্তু লাভ আশানুরূপ না হওয়ায় তাতে আরও […]

ওপারে স্বামী এপারে স্ত্রী,মাঝে ফাঁদের নকশা

ওপারে স্বামী আর এপারে স্ত্রী। এই দুয়ে মিলে গড়ে তুলেছেন মানবপাচারের বিশাল সিন্ডিকেট। স্বামী বাকির আলীর অবস্থান লিবিয়ায় আর স্ত্রী নাজনীন থাকেন কিশোরগঞ্জের ভৈরবে পিতার বাড়িতে। বাকির আলী লিবিয়ায় বাংলাদেশিদের অপরহরণ করে জিম্মি করে মুক্তিপণ দাবি করে। আর দাবিকৃত টাকা ভিকটিমের স্বজনদের কাছ থেকে বিকাশ নম্বরের মাধ্যমে আদায় করে স্ত্রী নাজনীন। পরে সেই সে টাকা ভাগ–বাটোয়ারা করে দেয় অপহরণচক্রের অন্যান্য সদস্যের পরিবার–পরিজনের কাছে। এভাবে দীর্ঘদিন ধরে লিবিয়ায় কর্মরত বাংলাদেশিদের অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায় করে আসছে দেশটিতে অবস্থানরত ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আশুগঞ্জ থানার কাঁচপুর গ্রামের রউফ ওরফে রুপ মিয়ার ছেলে বাকির আলী নিয়ন্ত্রিত লিবিয়ার বাংলাদেশি অপহরণকারী সিন্ডিকেট। বর্তমান তার কব্জায় রয়েছে শতাধিক বাংলাদেশি। তাদের জিম্মি রেখে চালানো হচ্ছে অমানুষিক নির্যাতন। সম্প্রতি বাকিরের স্ত্রী নাজনীনসহ এই সিন্ডিকেটের ৬ পাঁচ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা […]

হার না মানা রাশেদা

ভয়াবহ নির্যাতন করে পঙ্গু বানিয়ে দিয়েছে স্বামী। তালাকপ্রাপ্ত হয়ে বাপের বাড়ি ফিরে আসার পর আলাদা করা হয়েছে সন্তানদের। ক্রাচে ভর করে বয়ে বেড়াচ্ছেন ক্ষত–বিক্ষত পঙ্গুত্ব জীবন। তবু জীবনযুদ্ধে হার মানতে রাজি না শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলার তাতিহাটি ইউনিয়নের উত্তর ষাইটকাকড়া গ্রামের মৃত সনু শেখের মেয়ে রাশেদা বেগম। নির্যাতনের ক্ষত মুছে ফেলে জীবনযুদ্ধে ঘুরে দাঁড়াতে চান তিনি।  রাশেদা জানান, বাবা মারা গেছেন অনেক আগেই। মা অন্যর বাড়িতে ঝিয়ের কাজ করে সংসার চালাতেন। পার্শ্ববর্তী রহমতপুর গ্রামের তুফানো শেখের ছেলে বাবুল মিয়ার সঙ্গে তার বিয়ে হয়। দাম্পত্য জীবনে দুই ছেলে ও এক মেয়ের মা হন তিনি। স্বামী ছিল জুয়াড়ি। বিয়ের সময় যৌতুক হিসেবে ৬০ হাজার টাকা ছাড়াও রাশেদার পরিবার দিয়েছিল নানা আসবারপত্র। এরপরও টাকার জন্য প্রায়ই নির্যাতন করা হতো তাকে।  রাশেদা জানান, প্রায় একবছর […]

শিশু নয় যেন তরুণী

ভারতের সুপ্রিম কোর্ট মুম্বাই শহরের ১৩ বছর বয়সী এক ধর্ষিতা শিশুকে গর্ভপাত করানোর অনুমতি দিয়েছে। ৮ সেপ্টেম্বর ওই শিশুটির গর্ভপাত করানো হবে। ৩২ সপ্তাহের গর্ভবতী ওই শিশুটির গর্ভপাত করানোর জন্য আদালতের অনুমতির প্রয়োজন ছিল – কারণ ভারতের আইনে ২০ সপ্তাহের পর গর্ভপাতের অনুমতি শুধু তখনই দেয় যখন মায়ের জীবনের আশঙ্কা থাকে। শিশুটি যে গর্ভবতী হয়ে পড়েছে, সেটা জানাজানি হয় মোটা হয়ে যাওয়ার চিকিৎসা করাতে তার বাবা-মা তাকে ডাক্তারের কাছে নিয়ে যাওয়ার পর। শিশুটি অভিযোগ করেছে তার বাবার এক সহকর্মীই তাকে ধর্ষণ করেছে। ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শিশুটিকে গর্ভপাত করতে দেওয়ার অনুমতি দিয়েছে শীর্ষ আদালতের তিন সদস্যের একটি বেঞ্চ, যার নেতৃত্বে ছিলেন দেশের প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র। মুম্বাইয়ের জে জে হসপিটালের বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের প্যানেলের তৈরি করা মেডিক্যাল রিপোর্ট খতিয়ে দেখেই […]

এলো সে জগতে নতুন

রাত প্রায় একটা বাজে। চারিদিকে খুব বৃষ্টি। বৃষ্টি আর কাঁদায় একাকার সারা গ্রাম। গ্রামের নাম নাগরগঞ্জ। এই গ্রামে এখনো কোন বিদ্যুৎ আসেনি। চারিদিকে অন্ধকার। অন্ধকার ঘরে হারিকেনের আলোতে শুয়ে ছটপট করে শিরীন। শিরীনের বাচ্চা হবে। মরিয়ম খালা রাত এগারোটা থেকে চেষ্টা করে। কোন কিছুতেই কিছু হয়না। শিরীনের অবস্থা আরও খারাপ হতে থাকে। শিরীন ব্যাথার যন্ত্রণায় খুব কষ্ট পায়। এদিকে মাটির বারান্দার চকির উপর বসে দোয়া দরুদ পড়ে আব্দুল আলীম। শিরীন আব্দুল আলীমের বড় ছেলে কবিরের বউ। কবির ঢাকায় চাকরী করে। আব্দুল আলীমের এক ছেলে এক মেয়ে। মেয়ের শ্বশুর বাড়ি থাকে। কবিরের মা বেঁচে নাই। আব্দুল আলীম একা কি করবে বুঝে উঠতে পাড়ে না। কবিরকে একটা ফোন করা দরকার। কিন্তু মোবাইলে কোন টাকা নাই। কবিরের এটাই প্রথম বাচ্চা। দুই বছর আগে […]

মেইড ইন চায়না চীন। আদরের ডাক চায়না । বিশাল বড় একটা দেশ। অনেক গুলি প্রদেশ। এক প্রদেশ থেকে অন্য প্রদেশে যেতে হয় ট্রেনে বা বিমানে।

চীন। আদরের ডাক চায়না । বিশাল বড় একটা দেশ। অনেক গুলি প্রদেশ। এক প্রদেশ থেকে অন্য প্রদেশে যেতে হয় ট্রেনে বা বিমানে। ট্রেনে গেলে দুই থেকে চার দিন লাগে, আর বিমানে গেলে দুই তিন ঘণ্টা। জেসমিন আক্তার সিমু চায়না নিগবো প্রদেশ থেকে বিমানে এসে নামে সাংহাই। সাংহাইতে সিমু দুই দিন থাকবে। এরপর সে আরও তিনটা প্রদেশে যাবে। গুয়াংজো, সিচুয়ান, তারপর সুয়ানতো। সাংহাই এয়ারপোর্ট থেকে সিমুকে নিয়া যাওয়া হলো টেরি অয়াং অফিসে। অফিসে এসে সিমু’র পায়ের রক্ত মাথায় উঠে গেছে। এমনিতেই সিমু’র খুব খিদা লেগেছে। তার উপর এরা ভুল প্রোডাকশন করে রেখেছে। জেসমিন আক্তার সিমু গার্মেন্টস বিজনেস করে। চায়না থেকে ফেব্রিক্স, এক্সেসরিজ আমদানি করে সিমু’র ফ্যাক্টরিতে গার্মেন্টসে প্রোডাকশন হয়। তারপর সেই গার্মেন্টস চলে যায় ইউরোপ অ্যামেরিকা সহ বিভিন্ন দেশে। চায়নাতে সিমু […]

জিঞ্জিরা মেইড কাউসার পারভেজের বেলায় প্রায়ই এই রকম ঘটনা ঘটে। ঠিক যখন হাতে টাকা থাকে না তখনই এই ধরনের ঘটনা গুলি ঘটতেই থাকে। কোন কিছু না হলে, হয় পায়ের জুতা ছিড়েযাবে না হয় সেভিং জেল, পেস্ট বা রেজার শেষ হয়ে যাবে। বাধ্য হয়ে তাকে লোন করতেই হয়।

  কাউসার পারভেজের মেজাজটা টং হয়ে আছে। সারা রাত মোবাইলে চার্জ দিয়ে সকালে উঠে দ্যেখে মোবাইলে কোন চার্জই হয়নি। চার্জারটা পুরাপুরি নষ্ট হয়ে গেছে। এদিকে হাতে কোন টাকা নাই যে নতুন চার্জার কিনবে। আবার না কিনলেও না, কারন চার্জ দিতে না পারলে মোবাইল অচল। কাউসার পারভেজের বেলায় প্রায়ই এই রকম ঘটনা ঘটে। ঠিক যখন হাতে টাকা থাকে না তখনই এই ধরনের ঘটনা গুলি ঘটতেই থাকে। কোন কিছু না হলে, হয় পায়ের জুতা ছিড়েযাবে না হয় সেভিং জেল, পেস্ট বা রেজার শেষ হয়ে যাবে। বাধ্য হয়ে তাকে লোন করতেই হয়। কাউসার পারভেজ প্রতি মাসেই মনে মনে ভাবে এই মাসে যতই কষ্ট হোক এক টাকাও লোন করবে না, কিন্তু এই ধরনের ঘটনায় লোন না করেও কোন উপায় থাকে না। কাউসার পারভেজ মিরপুরে […]

আকবর রহমানের চারিত্রিক সার্টিফিকেট

আকবর সাহেব মাস তিনেক হল রিটায়ার্ড করেছেন। তিনি পানি উন্নয়ন বোর্ডের সহকারি চিফ ইঞ্জিনিয়ার ছিলেন। এতদিনের চাকরীতে কোন দিন তার কাজে কোন কালির দাগ লাগে নাই। আকবর সাহেব অত্যন্ত সৎ আর ভালো একজন মানুষ। অসততার সঙ্গে আপোষহীন ছিলেন সবসময়। তার জুনিয়ার অফিসার’রা এক একজন গাড়ী বাড়ী করে কোটি টাকার মালিক। আকবর সাহেবের কিছুই নাই। তাতেই তিনি অনেক খুশী। তিনি টাকার কাছে তার বিবেক বিক্রি করে দেন নাই। আকবর সাহেবের দুই মেয়ে এক ছেলে। বড় মেয়ের বিয়ে হয়ে গেছে। জামাই ইমপোর্ট এক্সপোর্ট এর বিজনেস করে। মেজ মেয়েটার বিয়ের বয়স হয়ে যাচ্ছে। পাত্র আসে দেখে যায়। তাকে নিয়ে আকবর সাহেবের অনেক চিন্তা। ছেলে স্কলারশিপ নিয়ে এখন কানাডায় থাকে। তাকে নিয়ে আকবর সাহেবের খুব একটা ভাবতে হয় না। আকবর সাহেবের এখন ভাবনা চিন্তা পেনশনের […]

চর দখল না করে মানুষ দখল ঠেকাল শফর

শফরের সাথে আমার পরিচয় ট্রেনে ।  বৃদ্ধ মানুষ । আখাউড়া জংশন স্টেশনে ট্রেন আটকে আছে । কারণ ঢাকা থেকে সিলেটমুখী কোনো ট্রেনের বগি লাইনচ্যুত হয়েছে এমনই জানালো সিগন্যালম্যান । শফরের গল্প শুনছিলাম । তার গল্পের সারাংশ এরকম : এক জোছনা রাতে মাথার পেছনে খচখচ শব্দ হতেই চমকে ওঠে শফর আলী। একটানা বসে থাকতে থাকতে কেমন জানি তন্দ্রার মতো এসে গিয়েছিল। পেছনে ফেরে দেখে মাচানের নীচ একটা নেড়ি কুকুর কুণ্ডলী পাকিয়ে বসে আছে। শব্দটা সেখান থেকেই আসা। আসলে পরপর তিন রাত ধরে চরে পড়ে আছে তারা। হাবীব বেপারীর দলবলের আর দেখা নেই। সামনে হামিদার চর। দুপুরের রোদে বালি ঝিকমিক করছে। যেন অসংখ্য হীরক খণ্ড ছড়িয়ে আছে সবখানে। হীরা না হলেও এ চরের মাটি কাঁচা সোনা। অতি উর্বরা এই পলল মাটিতে ফলে […]

“নবাব সিরাজউদদৌলা আইসিলেন ছবি তুলতে” সর্বসাধারণ

পুরনো ঢাকার সূত্রাপুরে লোহার পুল নামের একটি জায়গা আছে । এর আশপাশেই ফরিদাবাদ কলোনী । ফরিদাবাদ কলোনীর দিকে লোহারপুল থেকে যে রাস্তা গিয়ে মিলেছে সেটি অনেকটা সাপের মতো পেচিয়ে যেন আশপাশে খোলস ( ছোট ছোট গলি )বদলিয়ে গিয়েছে । সেই ফরিদাবাদ কলোনীতে ব্যাংকাররা বেশি থাকলেও সাবলেট নিয়ে থাকেন অনেকে । এরকম এক ব্যংকারের চিলেকোঠায় থাকেন নগেন মণ্ডল । বয়স সত্তোর্ধ। এখন কিছুই করেন না । বিয়ে করেননি । তাই বউ , সন্তান , সন্ততি থাকার কথা নয় । আমি উনার বাসায় যাই এক বৃষ্টিমুখর বিকেলে । রতন মণ্ডলের সাথে । রতন মণ্ডল  উনি চাচা / ভাতিজা । ওদের আদি বাড়ি বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে । নদী ভাঙনে ঘরবাড়ি বিলীন হয়ে গেল ঢাকা আসেন ওরা সপরিবারে ৮২ সালে । নগেন মণ্ডলের চেহারায় রাশান […]